মোঃ নাজমুল হক ইমু : ঢাকা জেলার আশুলিয়ার ধামসোনা ইউনিয়নের ডেন্ডাবর আমার স্কুল মাঠ পাঙ্গনে অসহায়,দুস্থ ও হতদরিদ্রদের মাঝে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ত্রাণ উপহার তুলে দিয়ে নিজের জন্য ভোট চাইলেন ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমান এমপি। গতকাল আশুলিয়ার ডেন্ডাবরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপহার বিতরণ ও আলোচনা সভার অনুষ্ঠানে আগামী জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষ্যে ভোট চান তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এনামুর রহমান বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে পাঠিয়েছেন আপনাদের জন্য কিছু উপহার দিয়ে। আমরা আজকে সেই উপহার দিচ্ছি। এসময় তিনি আরোও বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন সময়ে ও দূর্যোগে মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন। দেশের উন্নয়নে কাজ করছেন। আগামী ২০২৪ সালে জানুয়ারি মাসে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। আমাকে আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে ৩য় বারের মত সংসদ সদস্য হয়ে আপনাদের সেবা করার সুযোগ প্রদান করবেন। বক্তব্যের পরে উপস্থিত কার্ডধারীদের উপহারের ব্যাগ তুলে দেয়া হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের লোগো সম্বলিত সেই ব্যাগের গায়ে লেখা ছিল “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার” “ত্রাণ সামগ্রী হিসেবে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য” দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, অর্থ বছর ২০২১-২০২২। উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাভার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন খান। তিনি বলেন,জননেত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যে আভাস দিয়েছেন এনাম সাহেব-কেই আগামীতে নৌকা মনোনয়ন দেয়া হবে। এনাম ভাই আপনাদের সাথে আছেন,আমরা এনাম ভাইয়ের সাথে থেকে আপনাদের-কে সর্বাত্মক সহযোগীতা করব। আমি গর্বের সাথে বলছি আমাদের এই প্রিয় নেতার মতো আর কোন নেতা হয়না যিনি একজন প্রতিমন্ত্রী হওয়া সও্বে ও তিনি প্রত্যেকটি ওয়ার্ড পর্যায়ে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ করছেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আশুলিয়া থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ধামসোনা ইউপি চেয়ারম্যান মুহম্মদ সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, বাংলাদেশের কোন মন্ত্রী দূরে থাক,কোন সংসদ সদস্যও বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে নিজ হাতে ত্রাণ সামগ্রী জনগণের হাতে তুলে দেন না। উনি এমন একজন মন্ত্রী যা পৃথিবীতে কোথাও খুজে পাবেন না আমি মনে করি। এনাম ভাই যদি মন্ত্রী না হতেন,এত ত্রাণসামগ্রী,এত উন্নয়ন আমরা আপনাদের জন্য করতে পারতাম না। তিনি আছেন বলেই আমি এতবার আমার ইউনিয়নের লোকেদের ত্রাণ পৌছে দিতে পেরেছি। আগামী নির্বাচনে আপনারা তাকে ভোট দিয়ে পুনরায় নির্বাচিত করবেন।