কলাপাড়ায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে যৌণ নিপীড়ন, অভিযুক্ত গ্রেফতার

প্রকাশিত: ২৭-০৮-২০২১, সময়: ১৪:৩৮ |
Share This

এস এম আলমগীর হোসেন, কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর শহরের নাচনাপাড়া এলাকায় বাসায় ঢুকে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১৪) শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত বখাটে আল আমিন পারভেজ (২১) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওইদিন রাতেই ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন।
কলাপাড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আসাদুর রহমান মামলার বরাত দিয়ে জানান, নির্যাতনের স্বীকার কিশোরী রজপাড়া দ্বীন ই এলাহী দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। মাদ্রাসায় আসা যাওয়ার পথে দীর্ঘদিন ধরে বখাটে পারভেজ তাকে উত্ত্যক্ত করতো। ঘটনার দিন বাবা-মায়ের অনুপস্থিতে নাচনাপাড়া গ্রামের নিজ বাসায় একাই ছিলেন ।
গত বৃহস্পতিবার (২৬আগষ্ট) বেলা ১১টার একই এলাকার আব্দুল বারেক হাওলাদারের ছেলে আল আমিন পারভেজ (২১) ওই ছাত্রীর বাসায় গিয়ে পানি খেতে চায়। এসময় ছাত্রীটি পানি আনার জন্য ঘরে ঢুকলে বাসায় কেউ না থাকার সুযোগে সে ঘরে ঢুকে তাকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানি করে। এ সময় তার ডাকচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে পারভেজ সটকে পড়ো। খবর পেয়ে ছাত্রীর বাবা-মা বাসায় এসে মেয়ের কাছ থেকে তার সর্বনাশের বিষয়টি শুনে থানায় খবর দেন। এর দুই মাস আগেও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে পারভেজ ধর্ষণ করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।
পুলিশ জানায়, ঘটনার খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত আল আমিন পারভেজকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পিতা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।
শুক্রবার সকালে ওই ছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং অভিযুক্তকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে