কলাপাড়ায় ছাত্রলীগ নেতা হত্যা : আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ২৭-০৮-২০২১, সময়: ১৪:৩৫ |
Share This

এস এম আলমগীর হোসেন, কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ কলাপাড়ার মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম (২২) কে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহতের পিতা মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বর। শুক্রবার (২৭ আগষ্ট) বেলা ১১টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দল থেকে বহিস্কার না করলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অনশন পালনের ঘোষণা দেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিঁনি বলেন, তার পুত্রকে গত ২৮ জুলাই রাতে কলাপাড়ার তেগাছিয়া বাজার সংলগ্ন আজিমুদ্দিন স্লুইস এলাকায় ফেলে নৃশংশভাবে কুপিয়ে জখম করার পর ডান হাতের কব্জি কেটে ফেলে সন্ত্রাসীরা। এরপর ১০ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে গত ৭ আগষ্ট ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাকিবুল মারা যায়। কিন্তু এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলেও মুল অভিযুক্তরা এখন বহাল তবিয়তে আছে। উল্টো অভিযুক্ত মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও তার ভাই সাইফুল ইসলাম রায়হানের পিতা ফারুক পাহোলান তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। একইসাথে হত্যা মামলা প্রত্যাহারের হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে জানান।
তিঁনি বলেন, রাকিবুলকে হত্যার ঘটনায় কলাপাড়ার প্রভাবশালী ভূমিদস্যু সিন্ডিকেট চক্র জড়িত। গত ২৯ জুলাই কলাপাড়ায় থানায় রাকিবুলের মা রাহিমা বেগম বাদী হয়ে যে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা দায়ের করেছিলেন তাতে বাদ পড়েছে অনেক আসামী। তাই গত ২৫ আগষ্ট রাকিবুলের পিতা মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বর কলাপাড়া সিনিয়র জুডিশিয়াল মাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন (মামলা নং সি আর ৮৭৮/২০২১)। এ মামলায় পটুয়াখালী জেলা পরিষদ সদস্য আসলাম হাওলাদার, কলাপাড়া পৌর শ্রমিক লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. রকি, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিক তালুকদার, সরকারি মোজাহারউদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. হিরন, মো. মুসাসহ ৩৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। প্রধান আসামী করা হয় মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও তার ভাই সেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী সাইফুল ইসলাম রায়হানকে। পুলিশ এ ঘটনার মাষ্টারমাইন্ড রুবেল সিকদারসহ চারজনকে গ্রেফতার করে। তাদের তিনদিনের রিমান্ডেও আনে পুলিশ। কিন্তু এখন মূল আসামীরা এলাকায় ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না বলে তিনি অভিযোগ করেন।
তার দাবি, আগামী সাত দিনের মধ্যে রাকিবুল হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা না হলে পরিবার নিয়ে গণঅনশন করা হবে।
এ ব্যাপারে কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. আসাদুর রহমান জানান, ইতোমধ্যে রাকিবুল হত্যায় অভিযুক্ত চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে দেশীয় অস্ত্র। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান।

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে