শ্রীউলায় ঘেরের বাসা থেকে লুটপাটে বাঁধা দেয়ায় হামলায় রক্তাক্ত জখম-১

প্রকাশিত: ১৭-০৬-২০২১, সময়: ১৫:৩৪ |
Share This

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনির শ্রীউলায় মৎস্য ঘেরের বাসা থেকে লুটপাট করার সময় বাঁধা দেয়ায় লুটপাটকারীদের হামলায় ঘের মালিকের পুত্র রক্তাক্ত জখম হয়েছে। থানায় লিখিত অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার শ্রীউলায় মৃত. মনিরুদ্দিন গাজীর পুত্র মজনু গাজী ও খলিল শিকারী গংদের পাশাপাশি মৎস্য ঘের রয়েছে। বিভিন্ন কারনে উভয়ের মধ্যে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। এরই মধ্যে গত বুধবার দুপুর ১.৩০ মি. দিকে মজনুর ঘেরে কেহ না থাকার সুযোগে প্রতিপক্ষ এক দলীয় খলিল শিকারী, ইব্রাহীম শিকারী, মিলন গাজী লিটু গাজী ও ফিরোজ গাজী তাদের ঘেরে অনধিকার প্রবেশ করে। মজনুর ঘেরে থাকা এ্যালবেষ্টার ও টিন লুট করে নিয়ে যাচ্ছিল। পথি মধ্যে মজনুর বাড়ীর পেছনে পাউবো’র বাঁধের উপর তার পুত্র মোজাম্মেল এ্যালবেষ্টার ও টিনসহ প্রতিপক্ষদের দেখে ফেলে। বাঁধার সৃষ্টি করলে প্রতিপক্ষ খলিল শিকারী ও তার দলবল মোজাম্মেলকে বেদম মারপিট, হত্যার উদ্দেশ্যে গলায় গামছা পেচিয়ে শ্বাস করার চেষ্টা ও অন্ডকোষ চাপিয়া ধরে। তার ডাকচিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন ছুটতে থাকলে লুটপাটকারীরা মোজাম্মেলকে রক্তক্ত আহত করে ফেলে রেখে ঘটনা স্থল ত্যাগ করে। গুরুতর আহত অবস্থায় মোজাম্মেলকে বাড়ীর লোকজন ও স্থানীয়রা আশাশুনি হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে আশাশুনি থানায় মজনু গাজী বাদী হয়ে খলিল শিকারীসহ উল্লেখিতদের নাম উল্লেখ করে এজাহার দাখিল করেছেন। উল্লেখ্য, গত ১৪ জানুয়ারী খলিল শিকারী গংদের বিরুদ্ধে মৎস্য ঘের জবর দখলের অভিযোগে আমলী আদালত (আশাঃ)-তে ওবাইদুল হক বাদী হয়ে ০৮/২১ নং মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় মোজাম্মেলসহ ভূক্তভোগীর পরিবারের লোকজন খলিল শিকারীসহ লুটপাটকারীদের আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে পুলিশ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে