বাগেরহাটের মোংলার পর এবার ঝুঁকিতে শরণখোলা ও মোড়েলগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৭-০৬-২০২১, সময়: ১৩:২৩ |
Share This

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বাগেরহাটে গত ২৪ ঘন্টার নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে আরও ৫২ জনের শরীরে করোনা আক্রান্ত হয়েছে। ১০৭টি নমুনা পরীক্ষায় ৫২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্ত হয়। জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় সংক্রমণের হার ৪৮ দশমিক ৫৯ শতাংশ। যা গতদিনের তুলনায় ১৪ শতাংশ বেশি। জেলার সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা মোংলা উপজেলাতে ৩০টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ে। মোংলায় সংক্রমণের হার ৪৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ। যা গত ২৪ ঘন্টার তুলনায় ১৯ শতাংশ কম। জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৩ জন। মোংলার সীমান্তবর্তি শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলা দুটি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। এই দুই উপজেলায় করোনা সংক্রমণের হার প্রতিদিনই আশংকাজনক হারে বাড়ছে।
এদিকে, করোনার হটস্পর্ট মোংলা উপজেলায় তৃতীয় দফায় আরও ৭ দিনের কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করেছে প্রশাসন। তবে কঠোর বিধিনিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে সাধারণ মানুষের চলাফেরা বেড়েছে। জনসমাগমের উৎসস্থল হাটবাজারে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। প্রশাসনের আরোপ করা কঠোর বিধিনিষেধ কেউ মানছেন না। নৌকাতে গাদাগাদি করে যাত্রী পারাপার চলছে। ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ছে। প্রশাসনের আরোপিত কঠোর বিধিনিষেধ ২৩ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার।
বাগেরহাট জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, বাগেরহাটে দ্বিতীয় ঢেউয়ে গত মার্চ মাস থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। চিকিৎসার জন্য ৫০ শয্যার একটি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল প্রস্তুত রাখা আছে। জেলার সবচেয়ে ঝুঁকিতে রয়েছে মোংলা। সেখানে প্রতিদিন সংক্রমিত রোগী বাড়ছে। নমুনা পরীক্ষায় সংক্রমণেরহার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করছে। যা উদ্বেগজনক। এছাড়া মোংলার সীমান্তবর্তি শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলা দুটিতে প্রতিদিন করোনা সংক্রমণের হার আশংকাজনক হারে বাড়ছে।

উপরে