মঠবাড়িয়ায় বৃদ্ধকে শারিরিক ভাবে লাঞ্ছিত ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত: ২৫-০৪-২০২১, সময়: ১৭:০৫ |
Share This

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ভাইজোড়া গ্রামে জালাল আকন (৬৬) বৃদ্ধকে শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত করেও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধ জালাল আকনকে শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত করে সোহেল নামে এক যুবক। ওই বৃদ্ধের ছেলে ইয়াসিন আকন ঘটনার কারণ জিজ্ঞাসা করতে গেলে সোহেল ও তার দলবল ইয়াসিনকে মারধর করে জালাল আকনকে বসত ঘরে হামলা, লুটপাট চালায়। এসময় বাধা দিতে গেলে হামলায় জালাল আকন তার স্ত্রী পাখি বেগম ও ছেলে ইয়াসিন আকন গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকে ভর্তি করেন। কর্মরত চিকিৎসক ইয়াসিন আকনের অবস্থা অবনতি দেখলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এ বিষয়ে ১০ এপ্রিল জালাল আকন বাদী হয়ে সোহেল (৩০), আল আমিন (১৯), কালাম আকন (৪৫), জামাল আকন (৫০), শাহাদাৎ আকন (৫৮) এর বিরুদ্ধে মঠবাড়িয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জানতে পেরে মিমাংসার আশ্বাস দিয়ে দুইপক্ষের লোকজনদের শান্ত থাকার নির্দেশ দেন। চেয়ারম্যানের আশ^াসে জালাল আকন শান্ত থাকলেও উত্তেজিত সোহেল ইউপি অমান্য করে ১৫ এপ্রিল ইয়াসিন আকনদের ৬ জন আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিরাজ মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি আমি মিমাংসা করার চেষ্টা করবো।
এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামান মিলু বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপরে