পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন কেটে পাশ্ববর্তী ভান্ডারিয়া উপজেলা দুইটি ইউনিয়নের সমন্বয়ে নতুন নতুন একটি থানা গঠনের চেষ্টার খবরে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে এলাকাবাসি। ১১ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সমন্বয়ে গঠিত ১২৯,পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া একক সংসদীয় আসনের এ উপজেলাকে দ্বিখ-িত করার চক্রান্তের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার শহরের বিক্ষোভ মিছিল , প্রতিবাদ সমাবেশ ও গণস্বাক্ষর অভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় সর্বদলীয় নাগরিক কমিটির ব্যানারে এ প্রতিবাদ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ জদ্দিন আহম্মেদ এর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন, সর্বদলীয় ঐক্যজোটের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা এমাদুল হক খান, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন দুলাল, পৌর জাতীয় পার্টি (জাপা) সভাপতি মো. ফারুক হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রমুখ।
সমাবেশ শেষে সর্বদলীয় নাগরিক কমিটির ব্যানারে একটি বিক্ষেভ মিছিল শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন করে। সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন, ১২৯-পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনটি একটি একক সংসদদীয় আসন। ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত মঠবাড়িয়া ১৯০১ সালে থানায় রূপান্তরিত হয়। সম্প্রতি একটি মহল মঠবাড়িয়ার ১১ ইউনিয়ন থেকে তুষখালী, ধানীসাফা, মিরুখালী ইউনিয়নকে কেটে পাশর্^বর্তী ভা-ারিয়া উপজেলার তেলিখালী ও ইকড়ি ইউনিয়নের সমন্বয়ে নতুন একটি থানা গঠনের অপচেস্টার পায়তারা চালাচ্ছে । যা মঠবাড়িয়ার জনসাধারণ মেনে নেবেনা। উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ১১ ইউনিয়নের মঠবাড়িয়া উপজেলাকে দ্বিখ-িত করে নতুন একটি থানা গঠনের খবর ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি স্থানীয় জনমনে ক্ষুব্ধ ও বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। এরপর থেকে এ চক্রান্তের প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় ওঠে। এ খবরের প্রতিবাদে স্থানীয় সর্বদলীয় নাগরিক ঐক্য লাগাতার কর্মসূচি হাতে নিয়ে মাঠে নামেন।