ভান্ডারিয়া প্রতিবেদক : পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার ৪নম্বর ইকড়ি ইউনিয়নে অস্ত্রের মুুখে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী মো. শামীম মৃধা (৩০) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছেন র‌্যাব। বৃহস্পতিবার (১৬জুন)রাতে তাকে ঢাকার উত্তরা থেকে স্থানীয়র‌্যাবের একটি টিম শুক্রবার (১৭)জুন এ বিষয়ে র‌্যাবের পক্ষ থেকে এক প্রেস ব্রিফিং করে শামীমকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ভান্ডারিয়া থানা পুলিশ সূত্র । তবে তাকে এখনো এলাকায় আনা হয় নি। এর আগে গত ১১ জুন রাতে ঐ ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। ভান্ডারিয়া থানার মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভান্ডারিয়ায় গত ১১জুনদুপুর ৩ টার দিকে ঐ স্কুল ছাত্রী পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে অভিযুক্ত শামীম দেশীয় অস্ত্রের মুখে স্থানীয় নাসির উদ্দিন হাওলাদারের কলা বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী বাড়ি ফিরে পরিবারের লোকজনকে ধর্ষণের বিষয়টি জানালে ছাত্রীর বাবা মাছ শিকারের কাজে মহিপুর থাকায় স্বজনদের সহায়তায় তার মা বাদী হয়ে ভান্ডারিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। (১৩জুন) এলাকায় রেপিষ্ট শামীমকে গ্রেফতারের দাবীতে অভিভাবক ,শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মচসূচী পালন করে আসছিল। বৃহস্পতিবার ঢাকায় র‌্যাবের হাতে আটকের খবরে এলাকায় স্বস্তির নিঃশ্বাস বইছে বলে জানান উপজেলার ৫নম্বর ধাওয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান টুলু। অভিযুক্ত শামীম মৃধা (৩০) পেশায় একজন শ্রমিক। সে উপজেলার ধাওয়া ইউনিয়নের রাজপাশা গ্রামের মৃত আব্দুল বারেক মৃধার পুত্র এবং একাধিক মামলার আসামী। ভান্ডারিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান সাংবাদিকদের জানান ওই যুবক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের পর আত্মগোপনে ঢাকায় চলে যায়। গ্রেফতারকৃত শামীম একজন সিরিয়াল রেপিস্ট। এর আগে গত ২০১৭ সালে ১ নভেম্বর স্থানীয় এক মাদরাসা ছাত্রী মাদরাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে রামদা দিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে শামীম। তা ছাড়া ২০১৫ সালের ২৬ জানুয়ারী গভীর রাতে সে ভাÐারিয়া এলাকার এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে তাদের ঘরের দরজা ভেঙ্গে ধর্ষণের চেষ্টা করে। তার বিরুদ্ধে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, কিশোরগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ১০টির বেশী মামলা রয়েছে।