সিলেট প্রতিনিধি : ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে তলিয়ে গেছে সিলেট সদরসহ বিভিন্ন উপজেলার বিস্তৃর্ণ এলাকা। দেখা দিয়েছে মানবিক বিপর্যয়। বন্যার পানি বেড়ে যাওয়ায় আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছেন লোকজন। সিলেট এবং সুনামগঞ্জ জেলার বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার কারণে সিলেটের গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ এবং সুনামগঞ্জের সুনামগঞ্জ জেলা সদর, জামালগঞ্জ, দিরাই, দোয়ারাবাজার ও ছাতকে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে।আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর(আইএসপিআর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। শুক্রবার সেনা মোতায়ন করা হয়েছে। সেনা সদস্যদের পাঁচটি কাজ দেয়া করছে,পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নেওয়া, বেসামরিক প্রশাসনের সহায়তায় অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র নির্বাচন এবং উদ্ধারকৃত ব্যক্তিবর্গের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা, চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা, খাদ্য গোডাউন, পাওয়ার স্টেশন এবং অন্যান্য স্থাপনা রক্ষায় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করা ও সীমিত পরিসরে খাদ্য এবং সুপেয় পানি সরবরাহ করবে।এছাড়াও, সুনামগঞ্জের খাদ্য গোডাউন রক্ষা এবং সিলেটের কুমারগাঁও পাওয়ার স্টেশনে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) দেবজিৎ সিংহ বলেন, সুনামগঞ্জে বন্যার পানিতে আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধারে সেনাবাহিনীকে উদ্ধার তৎপরতা চালানোর অনুরোধ জানানো হয়েছে। সুনামগঞ্জ সদর, ছাতক ও দোয়ারাবাজার উপজেলায় শিগগির এ উদ্ধার কার্যক্রম শুরু হবে।