আশাশুনি প্রতিনিধি : মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তি ও অশালীন মন্তব্যের প্রতিবাদে আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বুধহাটায় এলাকার তৌহিদী জনতার ব্যানারে বাদ আছর বুধহাটা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি বাজারের বিভিন্ন সড়ক ও মেইন সড়ক হয়ে কুল্যার মোড় ঘুরে বুধহাটা বাসস্ট্যান্ড চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বুধহাটা বাজার মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ জাহাঙ্গীর আলম, মনিরুল ইসলাম, মাওঃ মুজাহিদুল ইসলাম। সমাবেশ পরিচালনা করেন, হাফেজ আছাফুর রহমান। এসময় বিভিন্ন রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, আলেম সমাজ, বিভিন্ন শ্রমজীবি মানুষ সহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেন। বক্তাগণ বলেন, ভারতের ক্ষমতাশীন দল বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা নামে এক কুলাঙ্গার মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করেছে। তার ধৃষ্টতাপূর্ণ, চরম হিংসাত্মক ও পবিত্র ইসলাম ধর্মের শেষ নবী ও বিশ্বজাহানের রহমতের কান্ডারীকে বক্তব্য মুসলিম বিশ্বকে ফুসিয়ে তুলেছে। অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার ও ফাঁসি কাষ্টে ঝুলিয়ে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করতে ভারত সরকারের কাছে জোর দাবী জানান হয়।

আশাশুনির শ্রীধরপুর খাল থেকে নবজাতকের মৃতদেহ উদ্ধার

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনির শ্রীধরপুরে খাল থেকে এক নবজাতকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়নের শ্রীধরপুর গ্রামে ধেপুয়ার খালের পানিতে শপিং ব্যাগের ভেতর থাকা টোপলা জাতীয় কিছু ভাসতে দেখে স্থানীয়দের মনে সন্দেহ হয়। একপর্যায়ে পুলিশে খবর দেয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এসআই হাবিব ঘটনাস্থলে পৌছে মরদেহটি খাল থেকে উদ্ধার করেন। স্থানীয়দের ধারনা গর্ভবর্তী মা বিশেষ কিছু খেয়ে অকালে শিশুটিতে হত্যার পর অথবা কোন ক্লিনিকে সন্তান নষ্টের পর এখানে ফেলে দেয়া হয়েছে। থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মমিনুল ইসলম পিপিএম জানান, খাল থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাৎক্ষনিকভাবে কোন সন্ধান না পাওয়া দাফনের জন্য স্থানীয় মেম্বরের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তদন্ত চলছে, অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আশাশুনিতে কোভিট-১৯ প্রতিরোধে কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনিতে কোভিট-১৯ প্রতিরোধে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দের সাথে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে আশাশুনি সদর ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন আশাশুনি প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম আহসান হাবিব। দি হাঙ্গার প্রজেক্টের বাস্তবায়ন ও আয়োজনে এবং ইউনিসেফ’র অর্থায়নে কোভিট-১৯ প্রতিরোধে ঝুঁকি-যোগাযোগ, সমাজের সম্পৃক্ততা এবং টিকা গ্রহণে যোগাযোগ (উদ্বুদ্ধকরণ) জোরদার করার বিষয়ে কর্মশালায় আলোচনা করা হয়। কোভিট-১৯ প্রতিরোধ প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী কাকলী সরকারের পরিচালনায় কর্মশালায় আলোচনা রাখেন স্বাস্থ্য সহকারী মোক্তারুজ্জামান স্বপন, উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ আব্দুল গফ্ফার, থানা মসজিদের ইমাম প্রভাষক বাকী বিল্লাহ, আশাশুনি সেবাশ্রমের অধ্যক্ষ ব্রহ্মচারী সুমন মহারাজ, হাফেজ সাইফুল্লাহ, হাফেজ ইউনুস আলী, হফেজ আবু জাফর, সমীরন চক্রবর্তী, শিবপদ চক্রবর্তী, মহাদেব চক্রবর্তী, তুষার কান্তি হালদার, সুভাষ চক্রবর্তী প্রমুখ। কর্মশালায় সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন, শাহারুল ইসলাম, সেবা বিশ^াস ও সাগর সরকার। কর্মশালায় বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় আলোচনার মধ্যে কোভিট-১৯ প্রতিরোধে করনীয় ও টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করনে আলোচনা করার জন্য আহবান করা হয়।

আশাশুনি নির্মানাধীন ব্রীজের মালামাল চুরির অভিযোগ

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি মরিচ্চাপ নদীর উপর নির্মানাধীন ব্রিজের রড চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগে জানাগেছে, বীজের নির্মান কাজ চলাকালীন কাজের মালামাল চুরি যাচ্ছে বুঝতে পেরে পাহারা কঠোর ও চোরাই মালামাল উদ্ধারে গোপন চেষ্টা করা হচ্ছিল। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমইপিএল কোম্পানীর নিরাপত্তাপ্রহরী গত ৫ জুন ভোর সাড়ে ৪টার দিকে হঠাৎ দেখতে পান ব্রীজের দক্ষিণ মাথায় (আশাশুনি পারে) রাখা রড ব্রীজের মুখে শ্রীকলস গ্রামের রিজিয়া বেগম ও তার ছেলে আলমগীরের হাতে। তখন নিরাপত্তা প্রহরীর ডাক চিৎকারে তারা দ্রæত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে ব্রীজের কাজে কর্মরতরা তাদের বাড়ী যেয়ে কিছু কাটা-ছাড়া রড উদ্ধার করেছে বলে জানান। থানায় অভিযোগ হওয়ার পর থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত শেষে অতি গুরুত্বপূর্ন না হওয়ায় রিজিয়া ও আলমগীরকে আর কখনও ব্রীজের আশপাশে না যাওয়ার জন্য সাফ জানিয়ে দেন। সাথে সাথে ব্রীজের কাজে নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান। এব্যাপারে আলমগীর হোসেন জানান, আমার পিতা মাদারীপুরে ইটের ভাটায় কাজ করে ও আমার মা ক্লিনিকে কাজ করে। আমরা দুই ভাই বাড়ীতে থাকি না। কে বা কারা আমাদের বাড়ীর পরিত্যাক্ত জায়গায় রড রেখেছে সেটা আমরা আদৌ জানি না।