ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চলমান যুদ্ধে এখন পর্যন্ত রাশিয়ার ১২ হাজার সৈন্য নিহত হয়েছে।
মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, রাশিয়ার ৪৮টি যুদ্ধবিমান, ৮০টি হেলিকপ্টার ও ১ হাজারেরও বেশি সামরিক যান ধ্বংস করেছে ইউক্রেন।
এর আগে গত সপ্তাহে প্রথমবারের মতো নিজেদের সৈন্যদের হতাহতের খবর প্রকাশ করে রাশিয়া। তারা জানিয়েছিল, ইউক্রেনে তাদের ৪৯৮ জন সৈন্য নিহত ও ১ হাজার ৫০০ জন আহত হয়েছে।
দুই পক্ষের দেওয়া এ হিসাবের কোনোটিরই সত্যতা যাচাই করতে পারেনি কেউ।
তবে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, রাশিয়ান সৈন্যরা ব্যাপক বাধার মুখে পড়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় ইউক্রেনের সেনারা রাশিয়ান সেনাদের ঘায়েল করেছেন। তাদের বিভিন্ন সামরিক যান ধ্বংস করেছেন।
এমনও দাবি করা হয়েছে, রাশিয়ার কমান্ডাররা ভেবেছিল তারা ইউক্রেনের ওপর হামলে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশটির সেনারা আত্মসমর্পন করবেন। কিন্তু সেটি হয়নি। উল্টো ইউক্রেনের সেনারা ব্যাপক প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।
এ কারণে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে রাশিয়ার সেনারা ইউক্রেনে সামরিক অভিযান পরিচালনা করলেও এখনো তারা রাজধানী কিয়েভ দখল করতে পারেনি।
তবে রাশিয়া কিয়েভ দখল করার জন্য প্রায় সবধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। বর্তমানে কিয়েভের পাশের শহরগুলোতে হামলা চালাচ্ছে তারা।