ফিরোজ আহম্মেদ, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে তিনতলা ভবণ থেকে পড়ে শারমিন খাতুন (২২) নামের এক গৃহবধূ নিহত হয়েছে। নিহত শারমিন শাজাহানের মেয়ে। শনিবার বিকাল ৪ টার দিকে নিজেরদের বাড়ির তিনতলা ভবন থেকে পড়ে মারা যায়। ছয় বছর আগে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার গোস্তবিয়ার এলাকার মাহবুর নামে এক ব্যক্তির সাথে শারমিনের বিয়ে হয়েছিল। নিহত গৃহবধূর চার বছর বয়সের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।
স্থানীয় সংবাদকর্মী মোমিনুর রহমান মন্টু জানান, শারমিনের মা বাবা কেউ বাড়িতে ছিলেন না। চারতলা ভবনের ওই বাড়িতে শারমিনরা চারতলায় বসবাস করে। বাকি নীচর তলাগুলো এখনো নির্মাণাধীন। তবে প্রতিবেশিদের ধারনা শারমিন গৃহস্থালীর ময়লা আবর্জনা ফেলতে তিনতলা ছাদে এসেছিল। সেসময় হয়তো অসাবধানতাবসত পড়ে যেতে পারে।
কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি মতলেবুর রহমান নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে কিভাবে সে ছাদ থেকে পড়ে গেছে তা বলতে পারেননি।