ডেস্ক রিপোর্ট : ব্রাজিলের ফুটবল তারকা রবিনহো ধর্ষণ মামলায় আগেই ফেঁসেছেন, করেছেন হাজতবাসও। এবার আরো বিপাকে পড়লেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে ইতালি।ইতালিয়ান প্রসিকিউটররা রবিনহোর বিরুদ্ধে বৈশ্বিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।সঙ্গে দলবদ্ধ ধর্ষণের সাজা কার্যকর করতে ইতালির বিচার মন্ত্রণালয়ে রবিনহোর প্রত্যর্পণ চেয়েছেন তাঁরা। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে এক তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে গত মাসে রবিনহোর ৯ বছরের জেল শাস্তি বহাল রাখেন ইতালির শীর্ষ আদালত।প্রসিকিউটররা এ বিষয় নিয়ে কোনো মন্তব্য না করলেও ভুক্তভোগী নারীর আইনজীবী জাকোপো গনোচ্চি ব্রাজিল বা ইতালিতে রবিনহোর শাস্তি কার্যকর দেখতে চান। ব্রাজিলিয়ান সংবিধানে অবশ্য তাদের দেশের নাগরিকদের প্রত্যর্পণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তাই আন্তর্জাতিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি মানে দেশের বাইরে অন্য কোথাও গেলে গ্রেপ্তার হতে পারেন রবিনহো।২০১৩ সালে মিলানের নাইট ক্লাবে নিজের ২৩তম জন্মদিন পালন করতে গিয়েছিলেন এক আলবেনিয়ান নারী। সেখানে রবিনহোসহ পাঁচজন মিলে তাঁকে ধর্ষণ করেন। তখন রবিনহো খেলতেন এসি মিলানে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৩ সালে তিনি এবং তাঁর চার বন্ধু মিলে ওই তরুণীকে মদ পান করান। এরপর পালা করে ওই তরুণীর সঙ্গে যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হন।খবরে বলা হয়েছিল, নেশাগ্রস্ত থাকায় ধর্ষকদের রুখতে পারেননি ওই তরুণী। তবে রবিনহো তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে নিজেকে নির্দোষও দাবি করে যাচ্ছেন তিনি।