ডেস্ক রিপোর্ট : এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এবার পাস করেছে মোট ১৩ লাখ ৬ হাজার ৭১৮ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে এক লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন পেয়েছে জিপিএ-৫। যার হার ১৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ।এর মধ্যে ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে এক লাখ ৭৮ হাজার ৫২২ জন। মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৮৭২ জন। আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৭৭৫ জন।রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ ফল প্রকাশ করেন।এবার ১১টি বোর্ডে গড় পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ। আর সাধারণ ৯টি বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ। এই ৯টি বোর্ডে পাস করেছে ১০ লাখ ৬৬ হাজার ২৪২ শিক্ষার্থী। অপরদিকে কারিগরি বোর্ডে পাস করেছে এক লাখ ৩৮ হাজার ৭০৮ জন। পাসের হার ৯২ দশমিক ৮৫ শতাংশ।এছাড়া মাদরাসা বোর্ডে এক লাখ এক হাজার ৭৬৮ জন পাস করেছে। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ। এবার ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৯৬ দশমিক ২০ শতাংশ। এখানে ৫৯ হাজার ২৩৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।
যশোরে পাসের হার ৯৮ দশমিক ১১ শতাংশ। এ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০ হাজার ৮৭৮ জন। বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ। এখানে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৯৭১ জন পরীক্ষার্থী। রাজশাহী বোর্ডে পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২ হাজার ৮০০ জন। কুমিল্লায় বোর্ডে পাসের হার ৯৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ। এ বোর্ডে ১৪ হাজার ১৫৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। সিলেটে পাসের হার ৯৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। এখানে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৭৩১ শিক্ষার্থী । চট্টগ্রামে পাসের হার ৮৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭২০ জন। দিনাজপুরে পাসের হার ৯২ দশমিক ৪৩ শতাংশ। এ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৫ হাজার ৩৪৯ পরীক্ষার্থী।ময়মনসিংহে বোর্ডে পাসের ৯৫ দশমিক ৭১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৬৮৭ জন। ২০২১ সালের ২ ডিসেম্বর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। এ পরীক্ষায় ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলিয়ে প্রায় ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী অংশ নেন। গতবারের চেয়ে এবার ৩৩ হাজার ৯০১ জন পরীক্ষার্থী বেশি ছিল।