বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোংলায় চিংড়ি ঘের দখলকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে বকুলতলা গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবলীগ নেতা মোতাহার সরদার নিহতের ঘটনায় পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা হাসপাতাল গেট থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরআগে বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহত যুবলীগ নেতার কাদের সরদার সোনাইলতলা ইউনিয়নের বকুলতলা গ্রামে ইউপি মেম্বর আব্দুল্লাহ শেখকে প্রধান করে তার গ্রুপের ২১ জনকে আসামি করে হত্যা ও মারপিটের মামলা দায়ের করেন।
গ্রেফতারকৃতার হলেন, আ. রাজ্জাকের ছেলে আ. হালিম শেখ (৩৭), মান্নান হাওলাদারের ছেলে হোসাইন হাওলাদার (২০), সরোয়ার শেখের ছেলে আসমাউল শেখ (২০), হাফিজুর হাওলাদারের ছেলে রুবেল হাওলাদার (২৭) ও হাসেম শেখের ছেলে সরোয়ার শেখ। গ্রেফতারকৃদের বাড়ী বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার সোনাইলতলা ইউনিয়নের বকুলতলা গ্রামে।
মঙ্গলবার রাতে উপজেলার সোনাইলতলা ইউনিয়নে একটি চিংড়ি ঘের দখল নিয়ে ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বর আব্দুল্লাহ শেখ গ্রুপের হামলায় চিংড়ি ঘেরে থাকা সাবেক ইউপি মেম্বার ফরিদ শেখ গ্রুপের সদস্য যুবলীগ নেতা মোতাহার সরদার নিহত ও আওয়ামী লীগের উভয় গ্রুপের ১১ জন আহত হয়।
মোংলা থানার ভারপ্রাপত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলামজানান, এঘটনায় নিহতের ভাই কাদের সরদার ইউপি মেম্বার আব্দুল্লাহ শেখকে প্রধান আসামি করে ২১ জনের নামসহ আরও ১০/১৫ জন অজ্ঞাত আসামির নামে বৃহস্পতিবার দুপুরে মোংলা থানায় মামলা করেন। এরপরই এই মামলার পাঁচ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। দুপুরেই আসামীদের বাগেরহাট আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।