ডেস্ক রিপোর্ট : শ্রীলঙ্কায় চরম আকার ধারণ করেছে অর্থনৈতিক সংকট। এ নিয়ে দেশটির সাধারণ জনতা বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে। লঙ্কান সরকার এই পরিস্থিতি যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে- তার বিরুদ্ধেও সহিংস বিক্ষোভ দেখা যাচ্ছে। দেশটির প্রেসিডেন্টের বাসভবনে অগ্নিসংযোগের চেষ্টাসহ সহিংসতার পরই রাজধানী কলম্বোতে রাতারাতি কারফিউ জারি করা হয়েছে। খবর রয়টার্স ও আল জাজিরার। জানা গেছে, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষের বাসভবনের বাইরে চলতে থাকা বিক্ষোভ সহিংসতায় রূপ নেওয়ার পরে সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, গোতাবায়ার বাসভবনের দিকে যাওয়ার রাস্তায় একটি বাসে আগুন লাগানোর আগে বিক্ষোভকারীরা, একটি পাঁচিল ভেঙে দেয় এবং পুলিশের দিকে ইট ছোঁড়ে। বিক্ষোভকারীরা এসময় শ্রীলঙ্কার সেনাবাহিনীর একটি বাস ও একটি জিপে আগুন লাগিয়ে দেয়। উল্লেখ্য, বৈদেশিক মুদ্রার অভাবে জ্বালানির ঘাটতি দেখা দেয়ায় দেশটিতে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে দৈনিক ১০-১২ ঘণ্টা করে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দ্বীপরাষ্ট্রটির প্রশাসন। লঙ্কান সরকার এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসার উপায় খুঁজছে।