জলঢাকায় জাপার আসনে মেয়র প্রার্থীর ভোট ৪২নিয়ে সমালোচনার ঝড়

হাসানুজ্জামান সিদ্দিকী হাসান জলঢাকা নীলফামারী প্রতিনিধি : নীলফামারী জলঢাকা পৌরসভা নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী আফরোজা পারভীন ৪২ ভোট পাওয়ায় উপজেলা জুড়ে জাতীয় পার্টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। জনগনের মূখে বর্তমানে জাতীয় সংসদ সদস্য থাকার পরেও জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের পৌর মেয়র প্রার্থী ভোট পায় মাত্র ৪২।এটাই জাতীয় পার্টিকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাবে। ভোট নিয়ে জাপার অনেক নেতাকর্মী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করেছে। জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ পারভেজ তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, “নীলফামারী জেলার জলঢাকা পৌর নির্বাচনে জাতীয়পার্টির মনোনীত প্রার্থী লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ভোট পেলেন ৪২টি। নীলফামারী জেলায় কিছু চিহ্নিত দালাল দলের ঐতিহ্যকে বিলীন করলো আজ। মঙ্গলবার এ বিষয়ে উপজেলা জাতিয় পার্টির সদস্য সচিব অধ্যাপক মমিনুল ইসলাম মঞ্জু সাংবাদিকদের বলেন, দলের চেয়ারম্যানকে ব্ল্যাকমেল ও ভুল বুঝিয়ে আফরোজা পারভীন কে এ মনোনয়ন নিয়ে দিয়েছে এ বিষয়ে আমরা কিছু জানি না তাই আমরা তার পক্ষে কাজ করি নাই। উপজেলা জাতিয় পার্টির আহবায়ক বর্তমান নীলফামারী ৩ আসনের এমপি মেজর রানা মোহাম্মাদ সোহেল (অবঃ) মুঠোফোনে সাংবাদিকদের জানান, যিনি মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি মহিলা যুবলীগ নেত্রী ছিলেন তাই আমাদের নেতা কর্মীরা নির্বাচনে কোন কাজ করে নাই।
জাপা মেয়র প্রার্থী আফরোজা পারভীনের সাথে মুঠো ফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি।
দলের নেতা কর্মীরা দলের চেয়্যারম্যান মহোদয়কে দৃষ্টি রাখার জন্য আহবান জানান। সেই সাথে ব্যর্থ নেতৃত্বের পদত্যাগ দাবি করেন । এখানে অনেক দলীয় নেতাকর্মী মনের দুঃখে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করে লিখেছেন ফেসবুক আইডিতে ও সরাসড়ি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য,বাংলাদেশের প্রধান তিন দলের দলীয় প্রতীককে পরাজিত করে জলঢাকা পৌরসভা নির্বাচনে ১৪ হাজার ৭ শত ৯৮ ভোট পে‌য়ে
নাগরিক সমাজের মনোনীত মেয়র প্রার্থী (স্বতন্ত্র) ইলিয়াস হোসেন বাবলু (নারিকেল গাছ) বেসরকারিভা‌বে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ফাহমিদ ফয়সাল কমেট চৌধুরী (ধানের শীষ) ১০ হাজার ৬ শত ৮ ভোট। এ ছাড়া আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো: মোহসীন (নৌকা প্রতীক) ৭৬৫, জাপার প্রার্থী আফরোজা পারভীন (লাঙ্গল প্রতীক) ৪২,স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবিনা আকতার মোবাইল (ফোন প্রতীক) ১২২ এবং জিয়াউর রহমান চৌধুরী (জগ প্রতীক) ৫৮৫ ভোট পেয়েছেন। গত ৩০ জানুয়ারি সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ১৫ টি কেন্দ্রে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জলঢাকা পৌরসভা মোট ৯ টি ওয়ার্ডে ভোট গ্রহণে ১৫ টি কেন্দ্রের ১ শত বুথে বিভক্ত করে ১৫ জন প্রিজাইডিং, ১ শত সহকারী প্রিজাইডিং ও ২ শত পোলিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছিল। পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৩৩ হাজার ৬ শত ৩৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬ হাজার ৯ শত ২১ জন, মহিলা ভোটার ১৬ হাজার ৭ শত ১৩ জন। প্রতিটি কেন্দ্রে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেন। ভোট কেন্দ্রগুলো জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান বি.পি.এম- পি. পি. এম. এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুব হাসান নয়ন, থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান ভোট চলাকালীন সমস্ত কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ