লোহাগড়ায় বাড়ির ছাদে মাল্টা ও কমলার চাষ

জহুরুল হক মিলু, লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : রাস্তার পাশ দিয়ে যেতেই চোখে পড়বে বাড়ির ছাদের উপরে শখের বাগানের টবে লাগানো মাল্টা ও কমলার গাছে ঝুলছে সবুজ আর হলদে রঙের বড় বড় মাল্টা ও কমলা। শুধু মাল্টা ও কমলা নয় শিম, লাউ, বেগুন ও মরিচসহ বিভিন্ন সবজিও দেখা যাবে ছাদে।
এটি হলো নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার লোহাগড়া পৌরসভার পোদ্দার পাড়ার ব্যবসায়ী মো. শামীমুজ্জামানের বাড়ির ছাদের উপরে তৈরি করা শখের বাগান। বাড়ির ছাদের এই বাগানে গেলেই আরো দেখতে পাওয়া যায় ছোট-বড় মাটির হাড়িতে লাগানো রয়েছে সবজির মধ্যে শিম, লাউ, বিদেশি ধনিয়া, বেগুন, ফলের মধ্যে রয়েছে আম, কমলা, মাল্টা, কাগজি লেবু আমড়াসহ নানা জাতের গাছ। ছোট্ট কমলার গাছে ধরেছিল প্রায় ১৫/২০টি বড় বড় কমলা যার মধ্যে আর মাত্র কয়েকটি অবশিষ্ট রয়েছে।
বাগানের মালিক লোহাগড়া বাজারের ব্যবসায়ী মো. শামীমুজ্জামান বলেন, ঢাকা শহরের বাড়ির ছাদের উপর তৈরি করা বাগান আমার খুব ভালো লাগতো। বর্তমানে আমাদের আবাদি জমির পরিমাণ দিন দিন উল্লেখযোগ্য হারে কমে যাচ্ছে। তাই আমি, আমার স্ত্রী ও কলেজ পড়ুয়া ছেলে মিলে আমাদের বাড়ির এই ফাঁকা ছাদটিতে বাগান করে কাজে লাগিয়েছি। প্রথমে আমি শখের বসে এডেন্দার এক নার্সারি থেকে ১০টি মাল্টা ও ৮টি কমলা গাছের চারা এনে টবে লাগিয়েছি। প্রতিটি কমলা গাছে প্রায় ১৫ / ২০টি বড় বড় কমলা ধরেছে এবং প্রতিটি মাল্টা গাছে প্রায় ২০/২৫টি মাল্টা ধরেছে । যার স্বাদ প্রথমে একটু টক হলেও ক’দিন পর খুব মিষ্টি হয়। এছাড়া আমার স্ত্রী মাটির হাড়িতে মাটি দিয়ে রোপণ করেছে বিভিন্ন রকমের সবজি। নিজেদের চাহিদা পূরণ করে বাগানে উৎপাদিত এই সবজি আশেপাশের লোকজনেরাও এসে নিয়ে যায়।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ^াস বলেন, যে ভাবে আমাদের আবাদি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে এক সময় মানুষ শহরের মতো গ্রামেও নিজ বাড়ির ফাঁকা ছাদে মো. শামীমুজ্জামানের মতো শখের বাগান তৈরি করতে শুরু করবে। ইতিমধ্যে মফস্বল এলাকার কিছু সচেতন মানুষেরা বাড়ির ছাদের ফাঁকা জায়গায় মো. শামীমুজ্জামানের মতো এই শখের বাগান তৈরি শুরু করেছে। বর্তমানে বাজারের সকল সবজি ও ফলে আশঙ্কাজনক হারে ব্যবহার করা হচ্ছে রাসায়নিক দ্রব্য নামক বিষ। এতে আমরা ব্যাপক হারে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। কিন্তু বাড়ির ছাদসহ বাড়ির আশেপাশের পড়ে থাকা ফাঁকা জায়গায় যদি আমরা ছোট ছোট আকারের বাগান তৈরি করি তাহলে সেই বাগান থেকে নিজেদের চাহিদা মতো বিষমুক্ত ফল ও সবজি খেতে পারি। এই বিষয়ে আমার অফিস থেকে মো. শামীমুজ্জামানকে সব সময় পরামর্শ ও সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হচ্ছে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ