পাইকগাছা পৌর নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌড়ঝাপ শুরু

পাইকগাছা থেকে ফিরে মীর রাজিবুল হাসান নাজমুল : খুলনা জেলার পাইকগাছা পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা নেতাদের কাছে ধণ্য দিচ্ছেন। শহীদ সন্তান সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র জেলা পরিষদ সদস্য শেখ কামরুল হাসান টিপু ও তার ছোট-ভাই শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত এবং বর্তমান মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর। তারা পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে নৌকা মার্কার প্রত্যাশী হয়ে প্রচার-প্রচারণা সমান তালে চালিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ আ’লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জামাত-বিএনপি থেকে দলে আগতদের দলে কোন প্রাধান্য দেয়া হবে না। এমনকি দলের কোন সদস্য পদ দেয়া হবে না। এছাড়া দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে মনোনয়ন দেবে না। ফলে এবারের নৌকার প্রার্থী হতে হলে অবশ্যই প্রকৃত নৌকার মাঝি হতে হবে। পাইকগাছা পৌরসভার নৌকার মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর নিজেকে ধরে রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এদিকে শেখ কামরুল হাসান টিপুর পিতা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শেখ মাহতাব উদ্দীন মনি মিয়া গদাইপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হয়ে দীর্ঘদিন জনসেবা করেছেন। শুধু তাই না তার পিতা একজন নামকরা দলিল লেখক ছিলেন। ১৯৭১ সালে মনি মিয়াকে পাক হানাদার বাহিনী ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে কপোতাক্ষ নদীতে ভাসিয়ে দেয়। টিপুর বড় ভাই শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু মুক্তিযোদ্ধাকালীন একটি ক্যাম্পের কমান্ডার ছিলেন। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ছিলেন। টিপু পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের ২বার কাউন্সিলর ছিলেন এবং মেয়র হিসেবে দু’বছর দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঠিকাদারী ব্যবসার পাশাপাশি খুলনা জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব পালন করেছেন। টিপু আ’লীগ পরিবারের সন্তান বলে পরিচিত। টিপুর ছোট ভাই শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন। সে দীর্ঘদিন জেলা ও উপজেলা যুবলীগের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমান উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক। ২০১৫ সালে পৌর নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন শেখ কামরুল হাসান টিপু ও সেলিম জাহাঙ্গীর। নৌকার মনোনয়নে সেলিম জাহাঙ্গীর পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে টিপু নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ করেন। তারা ৩ জন নৌকা প্রতীক পাওয়ার জন্য লবিং গ্রুপিং চালিয়ে যাচ্ছেন। এখন খোদ আ’লীগের মধ্যে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে চলছে নির্বাচনীয় হাওয়া। কেউ কেউ বলছে, দলীয়ভাবে প্রার্থী করতে হলে শহীদ মুক্তিযোদ্ধার দু’সন্তান টিপু ও মুক্ত। এর মধ্যে ঠিকাদারী ব্যবসায়ী উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু ও তার ভাই আনিছুর রহমান মুক্তর বয়সে অনেক বড়। দলীয়ভাবে পদ পদবীতে অনেক উপরে তাকে যদি আ’লীগ মনোনয়ন দেয় জয় হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেশী। ফলে নৌকার মাঝি নির্ণয় নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করছেন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ