বেসরকারি সংস্থার বিপনন নীতিতে চলছে সরকারি টেলিটক

প্রকাশিত: ০২-০৩-২০১৭, সময়: ১৮:১৭ |
Share This

বেসরকারি একটি সংস্থা থেকে ভাড়ায় নেয়া বিপনন নীতিতে চলছে সরকারি সংস্থা টেলিটকের কার্যক্রম এমন অভিযোগ ওঠেছে। এজন্য প্রতিমাসে টেলিটকের বাড়তি খরচ দুই কোটি টাকারও বেশি। প্রতিযোগিতামূলক দরপত্রের মাধ্যমে এ ধরনের কাজ দেয়ার বিধান থাকলেও মানা হয়নি সেটি।

নামে স্বতন্ত্র মোবাইল অপারেট কিন্তু গেল বছরের সেপ্টেম্বর থেকে টেলটকের পরিকল্পনা, বিপনন, ক্রয়, গ্রাহক সেবাসহ সব কার্যক্রম চলছে ভাড়া নেয়া নীতিমালায়। বেসরকারি সংস্থা রিচ ফর অপরচ্যুনিটি বা আরএফও’র তৈরি করা এ নীতিমালার জন্য প্রতি ৪ মাসে টেলিটকের বাড়তি ব্যয় ১০ কোটির ১৫ লাখ টাকারও বেশি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এ ধরনের বাড়তি খরচের জন্য দরপত্র ডাকার নিয়ম আছে কিন্তু মানা হয়নি তা। আরএফওকে কাজ দেয়ার ক্ষেত্রে আরও কিছু অস্বচ্ছতার অভিযোগ ওঠেছে। বারবার চেষ্টা করা হলেও এসব নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি টেলিটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। ক্রয় বিভাগের কর্মকর্তারাও বিষয়টা এড়িয়ে গেছেন।

টেলিটকের প্রকিউরমেন্ট ডিজিএম সাঈদ মাহমুদ মনে করেন, আমার পক্ষে কিছু বলা সম্ভব না। তবে অনিয়মের বিষয়টি পরোক্ষভাবে স্বীকার করেছেন বিপনন বিভাগের কর্মকর্তারা ।

টেলিটকের সেলস এন্ড মার্কেটিং ডেপুটি ম্যানেজার মনে করেন, আমি যতটুকু জানি এটা টেন্ডার প্রক্রিয়া ছাড়া হয়েছে। কিন্তু এটার প্রসেসে আমি নাই। সরকারি প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব বিপনন নীতি না থাকায় বিস্মিত এই খাতের বিশ্লেষকরা।

সরকারি নিরীক্ষার তথ্য, দেশের পাঁচটি মোবাইল অপরাটেররের মধ্যে টেলিটকের গ্রাহক সন্তুষ্টি সবার নীচে।

১২ বছরেও এই্ প্রতিষ্ঠানটি নিজস্ব জনবল কাঠামো তৈরি করতে পারেনি অন্যের মুখাপ্রেক্ষী হয়ে চলছে নানা অনিয়ম কিন্তু সেই অনিয়ম ধরার কেউ নেই। যার কারণে প্রতারিত হচ্ছেন টেলিটকের লাখ লাখ গ্রাহক। সংশ্লিষ্টরা বলছেন এখান থেকেও বের হয়ে আসার সুযোগ রয়েছে টেলিটকের।

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে