যশোর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বিপুলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা

যশোর প্রতিনিধি : যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুলের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম-ফেসবুকে অপপ্রচার ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে যশোর সদর উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি খন্দকার মারুফ হুসাইন ইকবাল, জাবের হোসেন জাহিদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বিদ্যুৎ, আব্দুর করিম রহমান, পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক রেজওয়ান হোসেন মিথুন, পৌর ছাত্রলীগের সদস্য তছিকুর রহমান রাসেল, ওবাইদুল ইসলাম রাকিব, লেবুতলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রুহুল কুদ্দুস প্রমুখ।মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আনোয়ার হোসেন বিপুল গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জনগণের ভোটে নির্বাচিত একজন জনপ্রতিনিধি। কিন্তু বিপুলকে প্রতিপক্ষ মেনে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার নানা অপকৌশলে তাকে স্তব্দ করতে চান। এজন্য তার ক্যাডার ও সন্ত্রাসী বাহিনী আনোয়ার হোসেন বিপুলের দিকে লেলিয়ে দিয়েছেন। এমনকি তাকে হত্যার পরিকল্পনা পর্যন্ত করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম-ফেসবুকে আপত্তিকর এবং অসম্মানজনক ভাষা প্রয়োগ করে তার সম্মানহানী করা হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকীর আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলকেও তারা বিতর্কিত করার অপ্রচেষ্টা করেছে। সর্বশেষ সোমবার তার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা করা হয়েছে।হামলা-মামলা দিয়ে আনোয়ার হোসেন বিপুলকে দাবিয়ে রাখা যাবে না দাবি করে মাবববন্ধনে বক্তরা আরো বলেন, ওয়ান ইলেভেন সরকারের সময় যখন রাজনীতির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, তখনো আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আটকের প্রতিবাদে বিপুলের নেতৃত্বেই যশোরে প্রথম প্রতিবাদ মিছিল বের হয়

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার সতর্কতা অবস্থানে রয়েছে

যশোর প্রতিনিধি : যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সতর্কতা অবস্থান নিয়েছে কারাপ্রশাসন। সাত সদস্য বিশিষ্ট স্ট্রাইকিং ফোর্স গঠন করা হয়েছে। যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা জানান, লালমনিরহাট জেলা কারাগারে বোমা মেরে উড়িয়ে দিয়ে জঙ্গি আসামি ছিনিয়ে নেয়ার জন্য চিঠি ও মোবাইল হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় সারাদেশের কারাগারে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। প্রধান কার্যলয় থেকে তাদের সর্বোচ্চ সতর্কাবস্তায় থাকার নির্দেশনা এসেছে। তার প্রেক্ষিতে কাজ শুরু করে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। কারাগারের জেলার তুহিন কান্তি খানকে প্রধান করে সাত সদস্য বিশিষ্ট একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স গঠন করা হয়েছে। সম্ভব্য আক্রমণ প্রতিরোধে তারা প্রস্তুত রয়েছে। কারাগারের বাইরের গেটে দায়িত্বপালনকারীদের বুলেট প্রুফ জ্যাকেট ও হেলমেট বাধ্যতামুলক করা হয়েছে। এছাড়া বহিরাগতদের প্রবেশে কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কারাসদস্যদের প্রবেশও বাহিরের ক্ষেত্রে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশিসহ রেজিস্টার খাতায় নাম ঠিকানা লিপিবদ্ধ বাধ্যতামুলক করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে সর্বোচ্চ সতর্কতা জোরদার করার সাথে সাথে সার্বক্ষনিক মনিটারিং চলছে। কারো গতিবিধি সন্দেহ হলেই তা খতিয়ে দেখছেন তারা। এছাড়া তিনি আরো বলেন, ঊর্ধ্বতন মহলের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।
উল্লেখ, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে ১৪২৫ জন বন্দি আটক রয়েছেন তাদের মধ্যে জেএমবি সদস্য রয়েছেন ১৫জন

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ