আরো ৩০ মৃত্যু, শনাক্ত ২,৬৮৬

ডেস্ক রিপোর্ট : গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আরো ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত হয়েছে দুই হাজার ৬৮৬ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৩০৫ জনের। আর সব মিলিয়ে শনাক্ত হয়েছে এক লাখ ৮১ হাজার ১২৯ জন। আজ শনিবার (১১ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে সরকারি বুলেটিনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বুলেটিন প্রকাশে অংশ নেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। ডা. নাসিমা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে দেশে আরো ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁরা ২৫ জন পুরুষ এবং পাঁচজন নারী। এঁদের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আটজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে তিনজন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৩০৫ জনের। এ পর্যন্ত যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৮২৪ জন এবং নারী ৪৮১ জন। জানানো হয়, নতুন যে ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে তাঁরা ঢাকা বিভাগের ১৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১০ জন, রাজশাহী বিভাগের তিনজন, খুলনা বিভাগের তিনজন এবং বরিশাল বিভাগের একজন। হাসপাতালে মারা গেছেন ১৮ জন, বাসায় ১১ জন এবং মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয় একজনকে। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৬২৮ জন। এ নিয়ে দেশের করোনা সংক্রমণ থেকে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৮৮ হাজার ৩৪ জন। ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১১ হাজার ৪৭৫টি। একই সময় আগের নমুনাসহ পরীক্ষা হয়েছে ১১ হাজার ১৯৩টি। এর মধ্যে করোনা রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে দুই হাজার ৬৮৬ জনকে। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে এক লাখ ৮১ হাজার ১২৯ জন। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯ লাখ ২৯ হাজার ৪৬৫টি। সারা দেশের করোনা চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত হাসপাতাল সম্পর্কে তথ্যে বলা হয়, ঢাকা মহানগরীতে করোনা রোগীদের জন্য সাধারণ শয্যাসংখ্যা ছয় হাজার ৩০৫টি এবং আইসিইউ শয্যাসংখ্যা ১৪২টি, সারা দেশে সাধারণ শয্যার সংখ্যা ১৪ হাজার ৯৪৫টি এবং সারা দেশে আইসিইউ শয্যার সংখ্যা তিন হাজার ৯৪টি। আইসোলেশন প্রসঙ্গে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে আরো ৮৫৩ জনকে। একই সময়ে আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছে ৫৫৪ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছে ৩৫ হাজার ৭৬৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছে ১৮ হাজার ২৭৭ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছে ১৭ হাজার ৪৯১ জন। কোয়ারেন্টিন প্রসঙ্গেও তথ্য দেওয়া হয় বুলেটিনে। বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় হোম এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে এসেছে দুই হাজার ১৪২ জন। একই সময়ে কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছে দুই হাজার ২২৭ জন। আর এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছে মোট তিন লাখ ৯১ হাজার ৩২৩ জন। আর এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছে তিন লাখ ২৭ হাজার ৮৭১ জন। ছাড়ের পর বর্তমানে হোম এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছে ৬৩ হাজার ৪৫২ জন। সারা দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান। এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে সেবা প্রদান করা যায় বলে জানানো হয় বুলেটিনে। বুলেটিনে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য বাতায়ন এবং আইইডিসিআরের হটলাইনে কল এসেছে এক লাখ ৮৬ হাজার ৩৮৬টি। এসব কলে সবাইকে স্বাস্থ্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। প্ল্যাটফর্ম মুক্তপাঠ-এ অনলাইনে সেবা দেওয়ার জন্য গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্ত হয়েছেন আরো পাঁচজন চিকিৎসক। এ নিয়ে এই বিভাগে বর্তমানে মোট প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকের সংখ্যা ১৬ হাজার ৪৭২ জন। এ ছাড়া বর্তমানে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে হটলাইনে চার হাজার ২১৭ জন চিকিৎসক স্বাস্থ্য পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন বলে জানানো হয় বুলেটিনে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ