বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবিতে শোকের মাতম : ৩০ জনের মরদেহ উদ্ধার

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজধানীর বুড়িগঙ্গা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় ৩০ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা। এ ঘটনায় নিহতদের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় শোকের মাতম চলছে। স্বজনদের আহাজারিতে আকাশ ভাড়ি হয়ে উঠেছে।
সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফরাশগঞ্জ-শ্যামবাজার এলাকা সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে শতাধিক যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি ডুবে যায়।সোমবার দুপুর পর্যন্ত নদীতে তল্লাশি চালিয়ে মরদেহগুলো উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও কোস্টগার্ড। উদ্ধার হওয়া ৩০ মরদেহের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ, ৮ জন নারী এবং ৩ টি শিশু।ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রোজিনা আক্তার বলেন, এখন পর্যন্ত ১৯ জন পুরুষ, ৮ নারী এবং ৩ টি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া মরদেহগুলোর পরিচয় এখনও জানা যায়নি। তবে দুর্ঘটনার কবলে পড়া লঞ্চটি মুন্সীগঞ্জের মিরকাদিম লঞ্চঘাট থেকে ছেড়ে এসেছে তাই ধারণা করা হচ্ছে নিহত সকলের বাড়ী মুন্সীগঞ্জেa। লঞ্চডুবির ঘটনায় নিখোঁজদের উদ্ধারে এখনও অভিযান অব্যাহত রয়েছে।উল্লেখ্য, সোমবার সকাল পৌনে ৮ টার দিকে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মুন্সীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে। পথে ফরাশগঞ্জ এলাকায় ময়ূর-২ নামের লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে ডুবে যায় সেটি।এলাকাবাসি জানায় তলিয়ে যাওয়া ‘মনিং বার্ড’ লঞ্চের বেশিরভাগ যাত্রীর বাড়ি মুন্সিগঞ্জ। তারা নৌপথে, লঞ্চেই বেশিরভাগ সময় যাতায়াত করতেন। এমন মৃত্যু স্বজনদের বাড়িতে এখন শোকের মাতম চলছে। নিখোঁজদের জন্য চলছে হাহাকার।প্রতিদিনের মতো সোমবার, সকাল সাড়ে সাতটায় মুন্সিগঞ্জের কাঠপট্টি থেকে অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ঢাকায় রওনা হয় ‘মর্নিং বার্ড’ নামের লঞ্চটি। এই লঞ্চে চলাচলকারী বেশিরভাগ মানুষই মুন্সিগঞ্জ সরদ, রিকাবীবাজার, রামপাল ও আবদুল্লাপুর এলাকার। চাকরি, ব্যবসাসহ নানা প্রয়োজনে ঢাকায় আসেন তারা। কাজ শেষে লঞ্চেই বাড়ি ফেরেন তারা।সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সদরঘাট টার্মিনালের একটু দূরে ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় ডুবে যায় ‘মর্নিং বার্ড’। এরপর নিখোঁজ আর নিহত স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠে চারিদিক। কাঠপট্টি ঘাটে অপেক্ষা করছেন স্বজনরা। কেউ কেউ ছুটে গেছেন ঘটনাস্থলে।মা সুফিয়া বেগমকে নিয়ে লঞ্চে উঠেছিলেন মিরকাদিম পৌর এলাকার সোমা বেগম। লঞ্চডুবিতে মেয়ে বাঁচলেও মা ফেরেননি।দিদার হোসেন সাত মাস আগে বিয়ে করেন। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি তিনি। ছোট বোনকে সাথে নিয়ে অসুস্থ দুলাভাইকে দেখতে যাচ্ছিলেন তারা। দু’জনেরই প্রাণ গেছে লঞ্চডুবিতে।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ