নর্থ সাউথে শিক্ষার্থীর অবরোধ-ভাংচুর

প্রকাশিত: ০২-০৩-২০১৭, সময়: ১২:৪৬ |
Share This

নিরাপত্তারক্ষীদের পিটুনিতে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শাহরিয়ার হাসনাত তপুর আহত হওয়ার ঘটনায় ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন তার সহপাঠীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুই ঘণ্টা প্রগতি সরণি অবরোধ করে রাখার পর দুপুর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এলাকায় তারা বিক্ষোভ ও ভাংচুর শুরু করে।

নর্থ সাউথের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ছাত্র শাহরিয়ার হাসনাতসহ আরও কয়েকজন গতকাল রাত ১০টার দিকে অ্যাপোলো হাসপাতালের সামনে একটি মোটরসাইকেল রাখেন। এ সময় বসুন্ধরা এলাকার কয়েকজন নিরাপত্তারক্ষী তাদের বাধা দেন। এ নিয়ে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে নিরাপত্তারক্ষীরা শাহরিয়ারসহ অন্যদের ওপর হামলা করেন। খবর পেয়ে নর্থ সাউথের আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী ঘটনাস্থলে গেলে তাদের ওপরও চড়াও হন নিরাপত্তারক্ষীরা। আহত শাহরিয়ারকে প্রথমে অ্যাপোলো হাসপাতালে এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল বুধবার রাতেই নর্থ সাউথের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেন। পরে আজ সকালে বিক্ষুব্ধ ছাত্রদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের একটি ক্যাফেটেরিয়ার পাশাপাশি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত কয়েকটি ব্যাংকে ভাংচুর করতে দেখা যায়।

বিক্ষোভকারীদের একজন জানান, দোষী নিরাপত্তারক্ষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়াসহ কয়েকটি দাবিতে তারা বিক্ষোভ করছিলেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সৈয়দ কামরুল ইসলাম তাদের জানান যে বিষয়টি নিয়ে তারা বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ ও পুলিশের সঙ্গে আলোচনা করবেন। এ আশ্বাস পেয়ে বেলা আড়াইটার দিকে শিক্ষার্থীরা ফিরে যান।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপপরিচালক (জনসংযোগ) বেলাল আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ কর্তৃপক্ষ বসে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছে। বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের দাবি বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে। এ ছাড়া তারা আহত ওই ছাত্রের চিকিৎসার খরচ বহন করবে বলে জানিয়েছে। তারা নিরাপত্তারক্ষীদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে। তদন্তের ভিত্তিতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার সংলগ্ন যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে দায়িত্ব পালনকারী ট্রাফিক সার্জেন্ট সজীব জানান, সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টা প্রগতি সরণি অবরোধ করে রাখে ছাত্ররা।

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে