যশোরের কেশবপুর ভ্রমণ পিয়াসীদের জন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে অপরূপ লীলাভূমি

এম. আব্দুল করিম, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি:দেশী ও বিদেশী ভ্রমন পিয়াসীদের জন্য পর্যটনের এক অপরূপ লীলাভুমির নাম যশোরের কেশবপুর উপজেলা । এই উপজেলা জুড়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভরপুর। রয়েছেবিলুপ্ত প্রায় বিরল প্রজাতির কালোমুখো হনুমান, ইতিহাস খ্যাত কপোতাক্ষ নদ, মোঘল স¤্রাজ্যের স্মৃতি বিজড়িত হাম্মামখানা, ভরত রাজার দেউলসহ বিভিন্ন প্রতœতত্ত¡ ভ্রমন পিয়াসীদের জন্য হতে পারে দর্শনীয় স্থান। উপজেলার সাগরদাঁড়ীতে অবস্থিত মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের জন্মভুমি, রয়েছে সাগরদাঁড়ী মধুপল্লী, তার পশ্চিমে রয়েছে জেলা পরিষদ ডাকবাংলো, তার সামনে কপেতাক্ষ নদের পাড়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্মিত কপোতাক্ষ ফিউসার পার্ক, পাশে অবস্থিত কপোতাক্ষ চিড়িয়াখানা, যা দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের বিনোদন প্রিয় মানুষের বাড়তি বিনোদন। সম্প্রতি আঞ্চলিক এই চিড়িয়াখানায় বিভিন্ন প্রজাতির জীবজন্তু ও পশু-পাখির সমারহ ঘটিয়ে দর্শকদের জন্য আকর্ষণীয় করে তুলেছেন চিড়িয়াখানার একমাত্র স্বত্ত¡াধিকারী আনিছুর রহমান। যার ফলে প্রতিদিন দুর-দুরান্ত হতে ছুটে আসা ভ্রমন পিয়াসীদের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এখানে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের জন্মভুমি হওয়ায় প্রতিদিন হাজার হাজার মধুপ্রেমী মানুষের বাড়তি বিনোদনের খোরাক মিটিয়ে আসছে এই কপোতাক্ষ চিড়িয়াখানা।
উপজেলা সদর থেকে মাত্র ২০ মিনিটের রাস্তা একটু সময় পেলেই যে কেউ ঘুরে আসতে পারেন মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের স্মৃতি বিজড়িত তার জন্মভুমি সাগরদাঁড়ীর এই কপোতাক্ষ চিড়িয়াখানাতে। উপজেলা সদর থেকে মাত্র ১৫ মিনিটের রাস্তা প্রতœতত্ত¡ বিভাগের তত্ত¡াবধানে মোঘল স¤্রাজ্যের স্মৃতি বিজড়িত মির্জানগর হাম্মামখানা, উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৩০ মিনিটের রাস্তা ভরত রাজার দেউল। উপজেলা সদর থেকে মাত্র ১২ মিনিটের রাস্তা মঙ্গলকোট পাচারই গ্রামে অবস্থিত এসবি গার্ডেন ঘুরে আসতে পারে সেটাও। এছাড়াও পৃথিবী বিখ্যাত বিরল প্রজাতির কালোমুখী হনুমানকে নিজ হাতে খাওয়াতে পারেন কলা, বাদাম, পাউরুটি। যশোর জেলা শহর থেকে ৩২ কিলোমিটার, খুলনা থেকে ৪৮কিলোমিটার, সাতক্ষীরা থেকে ৩৫কিলোমিটার রাস্তা কেশবপুর উপজেলা শহর পর্যন্ত। মটর সাইকেল, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস অথবা বাস যোগে আসা যায় কেশবপুরে। একই সাথে নাম মাত্র প্রবেশ মুল্যে মধু পল্লীতে দেখা মেলে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের পৈত্রিক বসত ভিটা ও প্রসূতি স্থানসহ কবি পরিবারের যাবতীয় খুটিনাটি। পাশে পর্যটন কমপ্লেক্স ও জেলা পরিষদের ডাকবাংলোয় রাত্রি যাপনেরও রয়েছে সুব্যবস্থা। সারাদিনের ক্লান্তি অবষাদ দুর করতে সদা প্রস্তুত এই ভবনগুলি। বিনোদন মনের খোরাক মিটাতে যে কোন সময় আসতে পর্যটনের লীলাভূমি যশোরের কেশবপুরে।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Comments are closed.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ