আশুলিয়ার নয়ন ঝুলি খালের উচ্ছেদ অভিযান অব্যহত

আওরঙ্গজেব কামাল : ঢাকা জেলার শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ার নয়ন ঝুলি খালের উচ্ছেদ অভিযান অব্যহত রয়েছে। অনেকে নিজ নিজ উদ্যেগে খালের সিমানা থেকে তাদের বাসাবাড়ী সরিয়ে নিচ্ছে। সরেজমিনে যেয়ে দেখাযায়, আশুলিয়ার অবস্থিত মানিকগজ্ঞ পাড়া এলাকায় নয়নঝুলি খাল দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে আশুলিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ । বৃহস্পতিবার দুপুরে বেরন এলাকার মোল্লাবাজার ও মানিকগজ্ঞ পাড়ার কবর স্থান এলাকায় নিজ নিজ উদ্যেগ্যে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিদর্ষণ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ। এসময় ওই এলাকায় খাল দখল করে গড়ে উঠা বেশ কিছু পাকা ও আধাপাকা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আশুলিয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ জানান, আশুলিয়ার বেরন মোল্লাবাজার ও মানিকগজ্ঞ পাড়া এলাকায় অবস্থিত নয়নঝুলি খালের জমি দখল করে এক শ্রেণীর ভূমিদস্যু খালের উপর পাকা ও আধাপাকা ইমারাত নির্মাণ করেছেন। এ কারণে খালটির পানি প্রবাহে বাধা সৃষ্টি হওয়ায় সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি নামতে না পারায় শিল্প এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে ফলে সে গুলি উচ্ছেদ অভিযান অব্যহত রয়েছে। তিনি আরও বলেন, পর্যায়ক্রমে খালটির যে সকল স্থানে পানি প্রবাহে বাধার সৃষ্টি হবে সেখানেই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে। অভিযান চলাকালে কোন দখলদার কিংবা ভূমিদস্যু বাধা প্রদানের চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এলাকাবাসী জানায় ঢাকা জেলার আশুলিয়ার ঐতিহ্যবাহী খাল নয়নজুলি। খালটি কালের আবর্তে আর একশ্রেণীর দখলদারদের কবলে পড়ে হারিয়েছে তার নাব্যতা, পানিপ্রবাহ ও আকৃতি। বর্তমানে খালটির কোথাও তোথাও কোন চিহ্ন পর্যন্ত নেই। দখলদাররা বহুতল ভবন, আধাপাকা বাড়ি নির্মাণ করে বহাল তবিয়তে ছিলেন। এ দিকে খালটি দখল হয়ে যাওয়ায় ইয়ারপুর ও আশুলিয়া ইউনিয়নের কমপক্ষে ১০ গ্রামের মানুষ বর্ষা মওসুমে পানিবন্দী হয়ে পড়েন। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে খালটি দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধারের জন্য মিছিল-মিটিং, মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি দেয়া হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আসে ফলে শুরু করে উচ্ছেদ অভিযান। যা চলমান রয়েছে কিন্ত দখলদাররা অতি উৎসাহী হয়ে নানাভবধ পন্থায় খালটি দখলের জন্য মরিয়া হয়ে পড়েছে। এদিকে আশুলিয়া জিরাবর বটতলা এলাকায় নয়নঝুলি সরকারি খাল দখল করে আমান স্পিনিং মিল স্থাপনা তৈরি করেছে। ফলে বৃষ্টির পানি ও মিলটির ডাইংয়ের পানিতে পশ্চিম জিরাবর এলাকার কয়েক হাজার একর কৃষি জমি নষ্ট হয়ে গেছে। বন্ধ হয়ে গেছে এলাকার পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা। জামগড়া এলাকায় বিনোদন কেন্দ্র ফ্যান্টাসি কিংডম পুরো খাল দখল করে আছে। একটু সামনে এগিয়ে দেখা যায় প্যারাগন পল্টি কারখানা। খাল ভরাট করে ফ্যান্টাসি কিংডম ও প্যারাগন পল্টি কারখানা নির্মাণ করে। কিছু দিন পূর্বে আশুলিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ জামগড়া এলাকায় প্যারাগন পল্টি কারখানায় অভিযান করে এবং বাঁধ অপসারন করেন। এ সময় ৪ জনকে আটক করেন ও জেল জরিমানা করেন। কিন্ত এত কিছুর পরও প্যারাগন পল্টি কারখানা এবং ফ্যান্টাসি কিংডম তাদের ইচ্ছে মত খালটি দখল করে রেখেছে। এছাড়া আশুলিয়ার জিরাবর এলাকার বটতলায় আমান স্পিনিং মিল কর্তৃপক্ষ খালটি দখল করে তাতে স্থাপনা তৈরি করে এলাকার পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা বন্ধ করে দিয়েছে। দেখা গেছে, মিলটির মাঝখান বরাবর নয়নঝুলি খালটি ছিল। মিল কর্তৃপক্ষ আইনের তোয়াক্কা না করে সরকারি এ খাল দখল করে স্থাপনা তৈরি করেছে। এছাড়া খালের ওপর একটি সরকারি কালভার্ট ভরাট করে পানি চলাচলের জায়গা বন্ধ করে দিয়েছে তারা। এ বিষয় জানতে চাইলে ভুক্তভোগীরা জানাই,আমিন স্পিনিং মিলের উত্তর পাশে খালের ওপর তৈরি করেছে দুই তলা ভবন। এ ভবনের মালিক স্থানীয় আমির হোসেন সরকার। খালের ওপর ভবন তৈরির বিষয় তার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমান স্পিনিং মিলের পূর্ব পাশের জমি তার দাদার। এ সম্পত্তি নামে মাত্র টাকায় কেনার জন্য আমান মিয়া তার বাবা ও চাচার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে। সে মামলা এখনও চলমান। নয়নঝুলি খালটি দখল করে মিল তৈরি করেছে আমান মিয়া।তার হাত অনেক লম্বা থাকায় এ বিষয়ে কেহ কোন ব্যবস্থা আজও পর্যন্ত গ্রহণ করতে পারেনি। এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোয়েন্দা সংবাদ সোসাইটির সেতৃবৃন্দরা বলেন সরকারের সাথে আমরা খাল উদ্ধার অভিযানে সহযোগীতা করছি।অচিরে সম্পূর্ণ খাল টি দখলমুক্ত করতে আমরা সরকারের পাশে থাকবো।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Leave a Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

ওয়েবসাইট নির্মানে: আইটি হাউজ বাংলাদেশ