সারা দেশেই বৃষ্টি, সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

প্রকাশিত: ১১-০৩-২০১৭, সময়: ০৫:১৪ |
খবর > জাতীয়
Share This

বঙ্গোপসাগরে দু’টি লঘুচাপ থাকায় রাজধানীসহ সারাদেশে ভারী থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। কোথাও কোথাও বজ্রসহ ভারী বৃষ্টি এবং শিলাবৃষ্টিও হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

বঙ্গোপসাগর ও উপকূলীয় এলাকার ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার শঙ্কায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে কুতুবদিয়ায়, ৯০ মিলিমিটার। এছাড়া সারা দেশেই ১০ মিলিমিটারের ওপরে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আরও দু’দিন সারা দেশে বৃষ্টিপাতের খবর জানিয়েছে আবহাওয়াবিদরা।

শনিবার (১১ মার্চ) সকাল ৬টা পর্যন্ত ঢাকায় ৩৮ মিলিমিটার, বরিশালে ২০ মিলিমিটার, খুলনায় ২৮ মিলিমিটার, রাজশাহীতে ২২ মিলিমিটার, সিলেটে ২৬ মিলিমিটার, চট্টগ্রামে ১৯ মিলিমিটার এবং ময়মনসিংহে ২৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস।

সৈয়দপুর ও রাজারহাট ছাড়া সারাদেশেই বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ আব্দৃল বারিক।

আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস বিভাগের একজন আবহাওয়াবিদ বাংলানিউজকে জানান, রোববার থেকে আবহাওয়ার কিছুটা উন্নতি হবে।

আবহাওয়া অফিসের সর্বশেষ পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও এর আশপাশের এলাকায় অবস্থান করছে। অপর একটি লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তরপূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত থাকায় উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালণশীল মেঘমালা তৈরি অব্যাহত রয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরের জন্য জারি করা তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আগামী চার থেকে পাঁচদিনে আবহাওয়ার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই বলে জানায় আবহাওয়া অফিস।

ঢাকায় শুক্রবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যার পর থেকে তুমুল বৃষ্টি শুরু হয়। অনেক স্থানে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতারও। ফলে গভীররাত পর্যন্ত মানুষকে যানজটে ভুগতে হয়েছে। শনিবার সকালেও রাজধানীতে বৃষ্টির খবর পাওয়া গেছে।

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে