সিনহাসহ ১১ জনের নামে চার্জশিট দাখিল

ডেস্ক রিপোর্ট : ঋণ জালিয়াতির মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করা হয়েছে।ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালতে সোমবার দুদক পরিচালক মো. বেনজীর আহম্মদ এ চার্জশিট দাখিল করেন।আদালত এটি দেখেছেন। এদিকে সম্প্রতি এ মামলায় সম্পৃক্ত একজনের তিনটি ব্যাংক হিসাবের মোট ৭৮ লাখ টাকা ফ্রিজের আদেশও দেয়া হয়েছে। ক্ষমতার অপব্যবহার, প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ফারমার্স ব্যাংক থেকে ঋণের নামে ৪ কোটি টাকা পে-অর্ডারের মাধ্যমে এসকে সিনহার ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তরের অভিযোগে গত ১০ জুলাই এ মামলাটি করা হয়।মামলার এজাহারে এসকে সিনহাসহ ১১ জনকে আসামি করা হয়। এর মধ্যে তদন্তাধীন অবস্থায় এক আসামি মো. জিয়া উদ্দিন আহমেদ মৃত্যুবরণ করায় তাকে চার্জশিটে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া তদন্তে দ্য ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী ওরফে বাবুল চিশতীর সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাকে চার্জশিটে আসামি করা হয়েছে।এসকে সিনহা ও বাবুল চিশতী ছাড়া মামলার অপর আসামিরা হলেন- ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) সাবেক এমডি একেএম শামীম, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান, একই এলাকার নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা, রণজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায়।মামলার চার্জশিটে বলা হয়, ব্যাংক থেকে ভুয়া ঋণের নামে ৪ কোটি টাকা বের করে নেয়া হয়। পরে ওই অর্থ ব্যক্তিগত হিসাব থেকে অস্বাভাবিকভাবে নগদে, চেক বা পে-অর্ডারের মাধ্যমে স্থানান্তর ও রূপান্তরের মাধ্যমে আত্মসাৎ করা হয়েছে। আসামিরা ওই অর্থ নিজেদের ভোগদখল ও তার অবৈধ প্রকৃতি, উৎস, অবস্থান গোপনের মাধ্যমে পাচার বা পাচারের প্রচেষ্টায় সংঘবদ্ধভাবে সম্পৃক্ত হন।
এদিকে সম্প্রতি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক মো. বেনজীর আহম্মদ আদালতে তিনটি ব্যাংক হিসাব ফ্রিজের আবেদন করেন। আবেদনে বলা হয়, আসামি মো. শাহাজাহানের ব্যাংক হিসাব থেকে পে-অর্ডারের মাধ্যমে দুই কোটি এবং আসামি নিরঞ্জন চন্দ্র সাহার ব্যাংক হিসাব থেকে পে-অর্ডারের মাধ্যমে দুই কোটি টাকা সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তরিত হয়।
২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর দুটি চেকে ১ কোটি ৪৯ লাখ ৬ হাজার টাকা ও ৭৪ লাখ ৫৩ হাজার টাকা শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের উত্তরা শাখায় নরেন্দ্র কুমার সিনহা এবং শঙ্খজিত সিংহের ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর হয়।
ওই অ্যাকাউন্ট থেকে শঙ্খজিত সিংহ একক স্বাক্ষরে বিভিন্ন ক্লিয়ারিং চেকের মাধ্যমে, পুরো টাকা অন্যত্র স্থানান্তর করেন। আদালত শুনানি নিয়ে শঙ্খজিত সিংহের ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের ডিইপিজেড শাখায় করা তিনটি হিসাব (একটি সঞ্চয়ী ও দুটি আমানত হিসাব) ফ্রিজের আদেশ দেন। হিসাবগুলোতে যথাক্রমে ১৮ লাখ, ৫০ লাখ ও ১০ লাখ টাকা রক্ষিত আছে।

Comments

comments

সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

© 2011 Allrights reserved to Daily Detectivenews