আশুলিয়ার মদিনা ফ্যাশন পোশাক কারখানার বিরুদ্ধে বেতন-ভাতা না দিয়ে শ্রমিক ছাটাইয়ের অভিযোগ

আশুলিয়া প্রতিনিধি : ঢাকাজেলার আশুলিয়ার মদিনা ফ্যাশন পোশাক কারখানার বিরুদ্ধে বেতন-ভাতা না দিয়ে শ্রমিক ছাটাইসহ নানা বিধ অভিযোগ পাওয়া গেছে। দির্ঘদিন যাবত শ্রমিকদের সাথে প্রতারনার মাধ্যমে চলছে এই পোশাক কারখানা এমনটি অভিযোগ শ্রিকিদের। শ্রমিকদের অভিযোগ ১২শ শ্রমিক থেকে ছাটাই করে বর্তামানে প্রায় ৭শ ম্রমিকের কারখানায় পরিনত করেছে মদিনা ফ্যাশন পোশাক কারখানা কতৃপক্ষ । প্রতিবার ঘটেছে শ্রমিকদের বেতন ভাতা না দেওয়ার ঘটনা। গত বৃহস্পতিবার আবারও আশুলিয়া শিমুল তলার মদিনা ফ্যাশন অ্যাপারেলস নামের পোশাক কারখানা শ্রমিকদের বেতন ভাতা বুঝিয়ে না দিয়ে চাকুরীচ্যুত করায় আন্দোলন করেছে শ্রমিকরা। বৃহস্পিতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেও কোন সুরাহ পয়নি শ্রমিকরা। শ্রমিকরা জানায় গত বুধবার কাজ শেষে ৫৯জন শ্রমিকের আইডি কার্ড রেখে দেয় মদিনা ফ্যাশন অ্যাপারেলস পোশাক কারখানা কতৃপক্ষ । বৃহস্পতিবার সকালে কাজে যোগদিতে গেলে তাদেরকে ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয়না। এ সময় শ্রমিকরা বিক্ষোপে ফেটে পড়েন। শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন শ্রম আইনের ২০ ধারায় তাদেরকে চাকুরীচ্যুত করা হয়। কিন্ত অধিকাংশ শ্রমিক ৭ থেকে ৮ বছর ঐ কারকানায় চাকুরী করেছে। ফলে চাকুরীর মিয়াদ বেশী হওয়ায় তাদেরকে চাকুরীচ্যুত করে। তাদের মতে তারা শ্রম আইনের ২৬ ধারায় তারা তাদের ন্যায্য প্রাপ্য পায়। এ বিষয় ঐ পোশাক কারখানর শ্রমিক জামাল হোসেন বলেন আমি ৪বছর ৪ মাস কাজ করার আমাকে কোন বেতন ভাতা না দিয়ে চ্যাকুরীচ্যুত করেছে । তবে আমরা জানি মালিক পক্ষ সব পাওনা বুঝিয়ে দিয়েছে তবে কারখানার কর্মকর্তা খোকন আমাদেরকে ঘুরাচ্ছে। আমাদের কেন বিনা নোটিশে চাকুরীচ্যুত করা হলো এর কারন আমরা জানতে চাই? জাহাঙ্গীর আলম নামের আর এক পোশাক শ্রমিক বলেন আমি দুই বছরের অধিক এই কারখানায় কাজ করি কোন কারন ছাড়াই আমাকে কোন বেতন ভাতা না দিয়ে চাাকুরীচ্যুত করেছে। এখন ছেলে মেয়ে নিয়ে আমি কি করবো। এই কারখানর অপর নারী শ্রমিক ছবিতোন বলেন আমি ৯বছর ৪ মাস এই কারখানায় চাকুরী করি কিন্ত কোন কারন ছাড়ায় আমাকে হুমকী দিয়ে কাগজে সাক্ষার নিয়ে কারখানা থেকে বের করে দেয়।এবং আমাকে নানা বিধ হুমকী ও ভয় ভীতি দেখায়। পোশাক শ্রমিক তানিয়া জানায় আমি ৮ বছর চাকুরী করি কিন্ত আমাকেও একই ভাবে চ্যাকুরীচ্যুত করেছে। আমি ২৬ ধারা অনুযায়ী ভাতা পাবো। কারখানার ক্যাবিন অপারেটর বুলবুলি জানায়,আমাকে জোর করে বাহিরে বের করে দেয় শুধু দুই মাসের বেতন দিয়ে।একই ভাবে অভিযোগ করেন পোশাক শ্রমিক ফারজাহানা তিনি বলেন আমি ৮ বছর চাকুরী করি কিন্তু আমাকে কোন কারন ছাড়াই বাহির করে দেয়। এছাড়া একই অভিযো করেন পোশাক শ্রমিক শিরিনা বলেন পিএম আনোয়ার ও খোকন নিজেরাই সম্পূর্ণ বেআইনী ভাবে আমাদের চাকুরীচ্যুত করেছে। আমরা এর বিচার চাই। খোঁজ নিয়ে জানাযায়,এমনি ভাবে প্রতিনিয়ত মদিনা ফ্যাশন অ্যাপারেলস পোশাক কারখানা বিনা কারনে শ্রমিকদের চাকুরীচ্যুত করছে। কারনা তারা শ্রমিকদের কাজ করিয়ে নিয়ম অনুযায়ী বেতন ভাতা না দিয়ে উদ্ধতন কর্মকর্তা খোকনসহ অনন্যরা হাতিয়ে নিচ্ছে অনেক টাকা। ভুক্তভোগীরা জানায় এই কারখানা থেকে আজও কোন শ্রমিক ঠিক মত বেতন ভাতা পাইনি। ফলে তাদের দাবী এই কারখানা নিয়ম অনুযায়ী চলুক অথবা সম্পূর্ণ বন্ধ করা হোক। বিষয়টি খতিয়ে দেখে সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

Comments

comments

সম্পাদক ও প্রকাশক : ডাঃ আওরঙ্গজেব কামাল
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : ইজ্ঞি: মোঃ হোসেন ভূইয়া।
বার্তা সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম লিটন
যুগ্ন-সম্পাদক : শামীম আহম্মেদ

ঢাকা অফিস : জীবন বীমা টাওয়ার,১০ দিলকুশা বানিজ্যিক (১০ তলা) এলাকা,ঢাকা-১০০০
মোবাইলঃ ০১৭১৬-১৮৪৪১১,০১৯৪৪২৩৮৭৩৮

E-mail:dnanewsbd@gmail.com

© 2011 Allrights reserved to Daily Detectivenews